দ্যা সুপার

“তানভীর শাহরিয়ার রিমনের চোখে সাফল্যের ১০ সূত্র “

বর্নিল নিউজের সাপ্তাহিক ‘দ্যা সুপার ‘ অনুষ্ঠানে চলতি সপ্তাহে যে ব্যবসায়ীর ওপর নজর দেওয়া হয়েছে, তিনি হলেন –

তানভীর শাহরিয়ার রিমন,
সিইও, র‌্যাংকস এফসি প্রোপার্টিস লি.।এছাড়াও তিনি একজন লেখক। প্রেরণাদায়ী বক্তা, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, খেলাধুলা প্রিয় একজন মানুষ। এবং তার সবচেয়ে বড় পরিচয় হল তিনি একজন ভাল মানুষ।

তানভীর শাহরিয়ার রিমন বিভিন্ন সেমিনার ও অনুষ্ঠানে তরুণদের উদ্দেশ্য রেখেছেন অসাধারণ বক্তব্য। আজ বর্নিল নিউজ এর পক্ষ থেকে থাকছে এই গুনীনেতার সাফল্যের ১০ সূত্র।যা তরুণদের দিবে আশার আলো এবং দেখাবে আগামী প্রগতিশীল বিশ্ব।

১) জীবনে যে কাজই কর না কেন,কাজকে ভালোবাসতে হবে :-

তরুণদের কে তিনি বলেন, আমাদের জীবনের অনেকটা সময় জুড়ে থাকবে আমাদের কাজ। তাই এমন কাজ করতে হবে যে কাজ তোমাকে প্রেরণা দিবে সামনে এগিয়ে যাওয়ার।নতুন কিছু করার।কাজ কে ভালোবাসতে হবে। ব্যাপারটা এমন নয় যে তুমি কাজকে ভালোবাসো ৫০%।কাজকে ভালোবাসতে হবে ১০০% তবেই সাফল্য অর্জন সম্বভ।

২)নিন্দুকদের পরিত্যাগ করতে হবে :

আমাদের সমাজে এমন অনেক মানুষ আছে যারা তোমার পিছনে অনেক কথা বলবে।কিন্তু তোমার জীবন কে সুন্দর করে সাজাতে পারবে না।তুমি শুধু মাত্র পারো তোমার জীবন কে সুন্দর করে সাজাতে।তাই নিন্দুকদের পরিত্যাগ কর।তাদের কোন কথায় কাল দিবে না

৩) সফটস্কিলের প্রতি নজর দাও :

এই বিষয় রিমন বলেন, “আগামী জব মার্কেট ডিগ্রি দিয়ে নির্ধারিত হবে না, নির্ধারিত হবে সফটস্কিল দিয়ে।।” তাই তোমারা যারা তরূণ আছো তারা পিপল স্কিল, কমিউনিকেশন স্কিল, ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্সি এগুলোতে নজর দাও। এগুলোই তোমাদের সামনে এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে।

৪)একা বড় না হয়ে সবাইকে নিয়ে বড় হতে হবে :

জীবনে একা খুব বেশি দূর যাওয়া যায় না।এই বিষয় রিমন বলেন “যদি তুমি দ্রুত যেতে যাও তবে একা যাও। কিন্তু বহুদূর যেতে হলে সবাইকে নিয়ে যাও।” এছাড়াও তিনি বলেন জীবনে একা বড় হওয়া যায় না।অন্যকে বড় করার মধ্যেই আছে প্রকৃত বড় হওয়ার আনন্দ। তাই তরূণেরা শুধু একা বড় হলে হবে না।সবাই কে নিয়ে বড় হতে হবে।সবাই মিলে কাজ করতে হবে।

৫)মানুষকে ভালোবাসতে হবে :

মানুষকে ভালোবাসতে পারা এই পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সফটস্কিল।তোমারা তরূণেরা যখন এই পৃথিবীর মানুষ গুলোকে ভালোবাসবে। তখন এই পৃথিবী সব উজাড় করে তোমাকে ভালোবাসবে৷ মানুষেরা তোমাদেরকে আপন করে নিবে।।তাই জীবনের সবচেয়ে বড় সফট স্কিল মানুষকে ভালোবাসা।এটি সাফল্যের অন্যতম হাতিয়ার।

৬)এক্য বদ্ধ হতে হবে :

এই এক্য শব্দটা খুব ছোট, কিন্তু এর অর্থ ব্যাপক।এক্য মানে এক জাতি নাহ, এক্য মানে এক ধর্ম না।এক্য মানে হল জাতি ধর্ম সব ভুলে একটা উদ্দেশ্য কে সামনে রেখে কাজ করে যাওয়া।সমান লক্ষ্য হবে এক। তাই রিমন বলেন সব তরূণদের এক্যবদ্ধ হতে হবে।একসাথে কাজ করতে হবে এবং একটি সুন্দর দেশ ও পৃথিবী গড়ে তুলতে হবে।

৭) খোদা বা সৃষ্টিকর্তার উপর বিশ্বাস রাখতে হবে :

আমাদের সবার সময় এক রকম যাবে না।কখন ও যাবে ভালো, কখনো খারাপ । ভালো সময়ের জন্য খোদার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকতে হবে। এবং খারাপ সময়ে তার প্রতি বিশ্বাস রাখতে হবে।রিমন বলেন একজন মানুষ প্রতিদিন যদি তার খোদাকে সরণ করে তবে অসংখ্য পাপ থেকে দূরে থাকতে পারবে।

৮)বিনিময়ের প্রত্যাশা না করে,কাজ করে যেতে হবে :

রিমন একবার এক সেমিনারে বলেছিলেন, ” আমরা আজকাল বেশি জাজমেন্টাল হয়ে যাচ্ছি এবং নিজেদের লাভ লোখশান নিয়ে বেশি চিন্তা করছি। ” তিনি বলেন একজন তরূণের ক্যারিয়ারের শুরুতেই এত ভাবলে হবে না। তাকে কাজ করে যেতে হবে।।তাই আমি বলব প্রত্যাশা না করে কাজ করে যাও।অবশ্যই ফল পাবে।

৯) সাফল্যের জন্য পরিশ্রম করতে হবে :

এই বিষয়ে তরুদের উদ্দেশ্য রিমন বলেন, ক্যারিয়ারের শুরুতে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।No pain No gain. তাই তরূণদের সাফল্যের জন্য পরিশ্রম করতে হবে।কাজ করতে হবে। অনেক কিছু ত্যাগ করতেও হতে পারে না।।

১০)পরিবারই সব :

আপনি যায় করেন না কেন দিনশেষে আপনার পরিবারই সব।এ বিষয়ে রিমন বলেন, আমরা এত কষ্ট করি, এত কাজ করি কার জন্য? অবশ্যই আমাদের পরিবারের জন্য।তাই পরিবারের গুরুত্ব সবার আগে।সবার আগে পরিবারকে মূল্যায়ন করতে হবে।তারপর বাকি সব।।

এই ছিল তানভীর শাহরিয়ার রিমন এর চোখে সাফল্যের ১০ সূত্র।লিখাটি শেষ করব তার বলা আমার একটি প্রিয় উক্তি দিয়ে ঃ-

“তরুণদের নি:স্বার্থ স্বপ্ন দেখার চেষ্টা করতে হবে , এবং সেই স্বপ্নের স্টেক হোল্ডার বাড়াতে হবে ।”

-তানভীর শাহরিয়ার রিমন,
সিইও, র‌্যাংকস এফসি প্রোপার্টিস লি.

রিলেটেড পোস্ট

Close